পূর্ব-পশ্চিম জমাট লড়াইয়ের অপেক্ষা

প্রতিনিধি, মতলব দক্ষিণ, চাঁদপুর ০৯ ডিসেম্বর, ২০১৮

আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে চাঁদপুর-২ (মতলব উত্তর ও মতলব দক্ষিণ উপজেলা) আসনে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন মহাজোটের চূড়ান্ত প্রার্থী হয়েছেন ঢাকা মহানগর (দক্ষিণ) আওয়ামী লীগের সহসভাপতি নুরুল আমিন। এখানে বিএনপির নেতৃত্বাধীন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের চূড়ান্ত মনোনয়ন পেয়েছেন বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য মোহাম্মদ জালালউদ্দিন।

নুরুল আমিনের বাড়ি মতলব উত্তর উপজেলার ১১ নম্বর পশ্চিম ফতেপুর ইউনিয়নের নাউরী গ্রামে। আর মোহাম্মদ জালালউদ্দিনের বাড়ি ১০ নম্বর পূর্ব ফতেপুর ইউনিয়নের লুধুয়া গ্রামে। এ দুটি ইউনিয়ন পাশাপাশি অবস্থিত। পূর্ব ও পশ্চিম ফতেপুর ইউনিয়নের এ দুই প্রার্থীর ভোটযুদ্ধ জমজমাট হবে বলে মনে করছেন স্থানীয় ভোটার এবং দুই জোটের নেতা-কর্মী ও সমর্থকেরা।

পূর্ব ফতেপুর ইউনিয়নের ফতেপুর গ্রামের বাসিন্দা মো. শাহজাহান ও মো. খোরশেদ আলম বলেন, জালাল উদ্দিন ও নুরুল আমিনের গ্রামের বাড়ি পাশাপাশি ইউনিয়নে। তাই এ দুই ইউনিয়নের ভোটারদের মধ্যেও এলাকাভিত্তিক সমর্থন ও ভোটযুদ্ধের অলিখিত প্রতিযোগিতা চলছে। যে দলেরই হোক না কেন, জালালউদ্দিন তাঁদের ঘরের সন্তান। দল-মতনির্বিশেষে তাঁরা জালালকেই নির্বাচনে জয়ী করার চেষ্টা করবেন। পূর্ব-পশ্চিমের ভোটযুদ্ধে শেষমেশ পূর্ব ফতেপুর ইউনিয়নের প্রার্থীর জয় হবে বলে মনে করেন তাঁরা।

অপর দিকে পশ্চিম ফতেপুর ইউনিয়নের গাজীপুর গ্রামের কলেজছাত্রী সুবর্ণা আক্তার এবং ব্যবসায়ী শাহ আলম মনে করেন, এবারের নির্বাচনে ১০ ও ১১ নম্বরের দুই ফতেপুর ইউনিয়নের এ দুই প্রার্থীর লড়াই হবে হাড্ডাহাড্ডি। দুজনেরই রয়েছে জনপ্রিয়তা ও গ্রহণযোগ্যতা। অর্থনৈতিকভাবেও তাঁরা শক্তিশালী। তবে তাঁদের ইউনিয়নের প্রার্থী নুরুল আমিনই নির্বাচনে জয়লাভ করবেন। সেই লক্ষ্যে তাঁরা কাজ করছেন। পূর্ব নয়, শেষতক জয় হবে পশ্চিমেরই।

এ ব্যাপারে নুরুল আমিন ও মোহাম্মদ জালালউদ্দিনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তাঁরা দুজনেই নির্বাচনে জয়ী হওয়ার আশাবাদ প্রকাশ করেন।

 

মন্তব্য

মন্তব্য নেই